Our Clients

Branch Name : Sreemangal,   Sylhet
Branch Code : 074

" আমার স্বপ্নের চাবিকাঠি ডিএমসিবিএল "

আমি মোঃ সিরাজ মিয়া " দি ঢাকা মার্কেন্টাইল কো-অপারেটিভ ব্যাংক লিঃ " শ্রীমঙ্গল শাখার একজন বিনিয়োগ গ্রহীতা। আমার ব্যবসার পরিধি তখন ছোট ছিল, মূলধনের পরিমাণ ছিল সামান্য। আমার ইচ্ছা আর স্বপ্ন ছিল ব্যবসাকে অনেক বড় করা। মূলধনের স্বল্পতার কারনে ব্যবসা বড় করতে পারছিলাম না। আমি " দি ঢাকা মার্কেন্টাইল কো-অপারেটিভ ব্যাংক লিঃ " এর শ্রীমঙ্গল শাখার ফিল্ড অফিসার মহীতোষ দাস এর মাধ্যমে জানতে পারি সহজ শর্তে ব্যাংকের বিনিয়োগ প্রদান করার কথা।
পরবর্তীতে ব্যাংকে এসে শাখা ব্যবস্থাপক এর সাথে কথা বললে তিনি আমাকে সহজ শর্তে জামানত বিহীন ১,০০,০০০/- টাকা বিনিয়োগ নেওয়ার জন্য বলেন। এভাবেই আমি পর্যায়ক্রমে অত্র শাখা হতে ১৩বার বিনিয়োগ গ্রহণ করি এবং বর্তমান ব্যবস্থাপক জনাব শংকর চন্দ্র দাশ এর মাধ্যমে সর্বশেষ আমি ৮,০০,০০০/- টাকা বিনিয়োগ গ্রহণ করি। বর্তমানে আমার ব্যবসার অবস্থা খুবই ভালো। মূলধনের পরিমাণও অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে। আমাকে সহজ শর্তে জামানত বিহীন বিনিয়োগ দেওয়ার জন্য আমি অত্র ব্যাংকের নিকট চির কৃতজ্ঞ। আমি " দি ঢাকা মার্কেন্টাইল কো-অপারেটিভ ব্যাংক লিঃ " এর সমৃদ্ধি ও উন্নতি কামনা করছি।

Branch Name : Patiya ,   Chittagong
Branch Code : 077

" ডিএমসিবিএল, মোঃ শাহজাহান কে সঞ্চয়ের ম্যজিক শিখিয়েছে "

বিনিয়োগ গ্রহনের পাশাপাশি সঞ্চয় জমা করে যে নিজেই স্বাবলম্বি হওয়া যায় তা মোঃ শাহজাহানের জানা ছিলনা। " দি ঢাকা মার্কেন্টাইল কো-অপারেটিভ ব্যাংক লিঃ " তাকে সঞ্চয় জমা করে স্বাবলম্বী হওয়া শিখিয়েছে। মোঃ শাহজাহান এর মূল লক্ষ্য ছিল নিজস্ব স্বল্প মূলধন নিয়ে ব্যবসা শুরু করার পর ব্যবসা প্রতিষ্ঠানটিকে আরো বৃহদাকারে সাজানো। কিন্তুু পুজির অভাবে কোন ভাবেই ব্যবসাকে এগিয়ে নিতে পারছিলনা। এর মধ্যে হাত খরচ বেশি হত যার কারনে কোন সঞ্চয় থাকতনা । এজন্য অধরাই থেকে যাচ্ছিল তার স্বপ্ন।
একদিন পটিয়া শাখার ফিল্ড অফিসার জনাব মোঃ ফোরকানউদ্দিন আমার ব্যাবসা প্রতিষ্ঠানে এসে ব্যাংকের বিনিয়োগ ও সঞ্চয়ের বিষয়গুলি বুঝিয়ে বলেন। তিনি বলেন আমার ধারনাই ছিলনা এত সহজ শর্তে ব্যাংক থেকে বিনিয়োগ গ্রহন করা যায় সাথে সাথে সঞ্চয় জমা করে স্বাবলম্বি হওয়া যায়। তার পরামর্শে শাখায় যেয়ে ব্যাবস্থাপক জনাব খোকন চক্রবর্তি এর সাথে বিনিয়োগ নিয়ে কথা বলি। গ্রাহক সর্বপ্রথম ০৪.০৮.১০ইং তারিখে ১,৫০,০০০/- টাকা বিনিয়োগ নিয়ে ব্যবসার পরিধি বাড়াতে শুরু করেন। এভাবে ০৬ (ছয়) বার বিনিয়োগ গ্রহন করে প্রতিবারই সময়মত বিনিয়োগের টাকা পরিশোধ করেছেন। সর্বশেষ ২৪.০২.১৫ইং তারিখে ৫,০০,০০০/- টাকা বিনিয়োগ চলমান আবস্থায় আছে। এ ভাবেই তার ব্যবসার পরিধি বেড়ে চলেছে। সঞ্চয়ের বিষয়ে তিনি বলেন, আমি আমার হাত খরচ কমিয়ে বিনিয়োগের পাশাপাশি সঞ্চয় জমা করে অবাক হয়েছি যে এত সহজে টাকা জমা হয় আর দ্রুত তা বিশাল আকার ধারন করে । এতে উদভুদ্ধ হয়ে পরাপর ৩টি সঞ্চয় হিসাব খুলি যেখানে ৯১,০০০/- টাকা জমা হয়েছে । এ প্রসঙ্গে গ্রাহক মোঃ শাহজাহান বলেন বর্তমান ব্যবস্থাপক জনাব মংখিং থৌ আমার বিনিয়োগ তদারকির বিষয়ে বিশেষ ভুমিকা পালন করছেন। ব্যাংকটি আমাকে সহজ শর্তে জামানত বিহীন বিনিয়োগ দিয়ে ও সঞ্চয় জমা করার উদভুদ্ধ করে আমার স্বপ্ন পুরন করেছে। আমি " দি ঢাকা মার্কেন্টাইল কো-অপারেটিভ ব্যাংক লিঃ " এর সমৃদ্ধি ও উন্নতি কামনা করছি ।

Branch Name : Gopalgonj ,   Dhaka
Branch Code : 078

" মোঃ রুহুল খান এখন সফল ব্যবসায়ী "

গোপালগঞ্জ শাখার গ্রাহক " মেসার্স টিটন ট্রেডার্স " এর স্বত্তাধিকার জনাব মোঃ রুহুল খান বর্তমানে একজন সফল ব্যবসায়ী। এ সফলতার পিছনে অগ্রগন্য ভুমিকা পালন করেছে " দি ঢাকা মার্কেন্টাইল কো-অপারেটিভ ব্যাংক লিঃ " গোপালগঞ্জ শাখা। জনাব মোঃ রুহুল খান আজ একজন সফল মানুষের দৃষ্টান্ত তিনি আজ অনেক দুর এগিয়ে এসেছেন। গোপালগঞ্জ জেলার মাদ্রাসা রোড সংলগ্ন " মেসার্স টিটন ট্রেডার্স " এর স্বত্তাধীকারি জনাব মোঃ রুহুল খান জানান তার ব্যবসা শুধু জেলা সদর এর মধ্যে সীমাবদ্ধ ছিল। পুজির অভাবে ব্যবসাটি প্রসারিত করতে পারছিলেন না।
এই সময়ে তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে গোপালগঞ্জ শাখার ফিল্ড অফিসার জনাব মোঃ মিজানুর রহমান এসে দেখা করে ব্যাংকের বিনিয়োগের বিষয়টি আবহিত করে। তার পরামর্শে গোপালগঞ্জ শাখায় যায় এবং ব্যাবস্থাপক জনাব মোঃ আবু হাসান এর কাছে তার ব্যবসায়িক সমস্যা ও পরিকল্পনার কথা বলেন। শাখা ব্যবস্থাপক তার ব্যবসায়িক উদ্দ্যমতা ও অভিজ্ঞতা দেখে ২৮.০৭.২০১২ইং তারিখে ২,০০,০০০/- টাকা বিনিয়োগ প্রদান করেন। এভাবে তিনি ০৫ (পাঁচ) বার বিনিয়োগ নিয়ে সময়মত পরিশোধ করেছেন। তিনি সর্বশেষ ১৪.০৯.২০১৪ইং তারিখে ৯,০০,০০০/- টাকা বিনিয়োগ নিয়ে বিনিয়োগ পরিশোধ করছেন। বর্তমান ব্যবস্থাপক জনাব মোঃ মনিরুজ্জামান বিনিয়োগ গ্রহিতার বিনিয়োগ তদারকির বিষয়ে বিশেষ ভুমিকা পালন করছেন বলে তিনি জানান। তিনি বলেন ব্যবসার ক্ষেত্রে সততা, দক্ষতা, আর ব্যবসায়িক মনোযোগ সাথে পুজি থাকলে যে কোন ব্যবসাকে প্রতিষ্ঠিত করা সম্ভব, এতে নিজের ভাগ্যেরও পরিবর্তন হয়ে থাকে। " দি ঢাকা মার্কেন্টাইল কো-অপারেটিভ ব্যাংক লিঃ " এর গোপালগঞ্জ শাখা আমার ভাগ্য পরিবর্তন করতে সবচেয়ে বড় ভুমিকা পালন করেছে। জামানত বিহীন সহজ শর্তে বিনিয়োগ প্রদানের জন্য আমি ব্যাংকের কাছে চিরকৃতজ্ঞ। আমি " দি ঢাকা মার্কেন্টাইল কো-অপারেটিভ ব্যাংক লিঃ " এর সমৃদ্ধি ও উন্নতি কামনা করছি।

Branch Name : Raozan,   Chittagong
Branch Code : 080

" ডিএমসিবিএল, কাজী মোহাম্মদ নুরউদ্দিন এর জীবনকে আলোকিত ও আনন্দময় করেছে "

ফকিরহাট এর রাউজান এ মা-মনি শপিং কমপ্লেক্র এ অবস্থিত ‘‘ষ্টাইল ওয়ান ফ্যাশন’’ এর মালিক কাজী মোহাম্মদ নুর উদ্দিন " দি ঢাকা মার্কেন্টাইল কো-অপারেটিভ ব্যাংক লিঃ " এর রাউজান শাখা হতে বিনিয়োগ নিয়ে তা ব্যবসার কাজে লাগিয়ে এখন সফল ব্যবসায়ী। " ডিএমসিবিএল " কাজী মোঃ নুরউদ্দিন এর জীবনকে করেছে আলোকিত ও আনন্দময় । " ষ্টাইল ওয়ান ফ্যাশন " এর মালিক কাজী মোহাম্মদ নুর উদ্দিন পুজির অভাবে ব্যবসা সম্প্রসারন করতে পারছিলেন না। এ আবস্থায় তিনি হতাশায় ভুগছিলেন।
এই সময়ে আর্শিবাদ স্বরূপ হাজির হয় " দি ঢাকা মার্কেন্টাইল কো-অপারেটিভ ব্যাংক লিঃ " এর রাউজান শাখার ফিল্ড অফিসার জনাব মোঃ রাশেদ চৌধুরী। ফিল্ড অফিসার এর মাধ্যমে তিনি জানতে পারেন ব্যাংকটি সৎ ও নিষ্ঠাবান ব্যবসায়ীদের সহজশর্তে বিনা জামানতে বিনিয়োগ প্রদান করে। শাখা ব্যবস্থাপক জনাব মোঃ ইসমাইল চৌধুরী এর আমনন্ত্রনে কাজী মোহাম্মদ নুর উদ্দিন ব্যংকে গিয়ে তার এর সাথে দেখা করে তার ব্যবসার বিস্তারিত বিষয়য়াদি জানান। শাখা ব্যবস্থাপক তার কথার বিস্তারিত শুনে ০৯.০৬.২০১৪ইং তারিখে ১,০০,০০০/- টাকা বিনিয়োগ প্রদান করেন। এরপর কাজী মোহাম্মদ নুর উদ্দিন পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নী। এভাবে তিনি ০৩ (তিন) বার বিনিয়োগ নিয়ে প্রবিারই সময়মত পরিশোধ করেছেন। অবশেষে গত ১৮-০৫-২০১৫ইং তারিখে ২,০০,০০০/- টাকা বিনিয়োগ নিয়ে তার ব্যবসার ব্যাপক সম্প্রসারন করেছেন। কাজী মোহাম্মদ নুর উদ্দিন এখন সফল ব্যবসায়ী। তার এ সাফর্যেতর পিছনে রয়েছে " দি ঢাকা মার্কেন্টাইল কো-অপারেটিভ ব্যাংক লিঃ " এর রাউজান শাখার বিনিয়োগ সহযোগিতা। কাজী মোহাম্মদ নুর উদ্দিন বলেন আমি " দি ঢাকা মার্কেন্টাইল কো-অপারেটিভ ব্যাংক লিঃ " এর সমৃদ্ধি ও উন্নতি কামনা করছি ।

< Prev12345678910111213Next